মসজিদে নববীর দরজা সমূহ

মসজিদে নববীর দরজা সমূহ, মদিনা, সৌদি আরব

মসজিদে নববী (আরবি: المسجد النبوي) যা মুহাম্মাদ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম কর্তৃক প্রতিষ্ঠিত মসজিদ। এটি বর্তমান সৌদি আরবের মদিনায় অবস্থিত। ৬২২ খ্রিস্টাব্দে মুহাম্মদ (সাঃ) হিজরত করে মদিনায় আসার পর এই মসজিদটি নির্মিত হয়। মসজিদে নববীতে প্রবেশের জন্য মোট ৪২টি দরজা রয়েছে। যা মূল ভবন কমপ্লেক্সে প্রবেশাধিকার প্রদান করে।

মসজিদে নববীকে ইসলামের দ্বিতীয় পবিত্রতম মসজিদ এবং বিশ্বের বৃহত্তম স্থাপনাগুলির মধ্যে একটি হিসাবে বিবেচনা করা হয়। মসজিদের বিখ্যাত সবুজ গম্বুজটি মুহাম্মদ (সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম) এর সমাধিস্থলকে চিহ্নিত করে। এই ব্লগে আমরা প্রতিটি গেট সম্পর্কে বিস্তারিত লিখব এবং তাদের তাৎপর্য ব্যাখ্যা করব।

মসজিদে নববীর গেটস এর তালিকা

মসজিদে নববী বা নবী মুহাম্মদ সাঃ এর মসজিদে ৪২টি দরজা রয়েছে। তাদের বিভিন্ন নামও রয়েছে। এসব দরজা বিভিন্ন সময়ে নির্মিত হয়েছে। নিম্নে প্রতিটি গেটের নাম এবং তাৎপর্য বিস্তারিত বর্ণনা করা হলো।

বাবে আস-সালাম (গেট নং - ১)

বাবে আস-সালাম বা "শান্তির দ্বার" হল মসজিদে নববীতে সবচেয়ে বড় প্রবেশদ্বার। এটি মসজিদের প্রাচীনতম অংশের উত্তর-পশ্চিম কোণে অবস্থিত। এটি ছিল পশ্চিম দেয়ালের মূল অংশ যা খলিফা ওমর রাঃ এর শাসনামলে আনুমানিক ৬৪০ খ্রিস্টাব্দে (১৮ হিজরীতে) নির্মিত হয়েছিল। সময়ের সাথে সাথে এটি মসজিদ সম্প্রসারণের সময় আস্তে আস্তে পশ্চিম দিকে সরে যায়। স্থানান্তর করা সত্ত্বেও, এটি মসজিদের প্রাচীনতম গেটগুলির মধ্যে একটি।

বাবে আবু বকর (গেট নং - ২)

বাবে আবু বকর, মসজিদে নববীর উত্তরে বাব আস-সালামের পাশে অবস্থিত। এটি "খুখা আবু বকর" নামেও পরিচিত, সম্ভবত মুহাম্মদ (সাঃ) এর সঙ্গী আবু বকর (রাঃ) এর নিকটবর্তী বাড়ির নামানুসারে নামকরণ করা হয়েছে। প্রাথমিকভাবে, এটি মসজিদে নববীর একটি ছোট প্রবেশদ্বার, কারণ ইবনে হাজার (রঃ)বলেছেন, "ছোট দরজা কে খুখাহ বলা হয়," এবং এটি মিম্বরের পশ্চিমে পঞ্চম স্তম্ভের কাছে ছিল। মসজিদ সম্প্রসারণের সময় এই দরজাটি পশ্চিম দিকে সরে গিয়েছিল। প্রথম সৌদি সম্প্রসারণের সময়, এর নাম খুখা আবি বকর থেকে বাবে আবু বকর হয়।

বাবে আল-রাহমাহ (গেট নং - ৩)

বাবে আল-রাহমাহ, মসজিদ আন-নববীর তিনটি প্রাচীনতম দরজার মধ্যে একটি, যা প্রথমে পশ্চিম পাশের দেয়ালে মুহাম্মদ (সাঃ) স্থাপন করেছিলেন। তাঁর জীবদ্দশায়, এই দরজাটি আতিকা বিনতে আবদুল্লাহ বিন ইয়াজিদের বাড়ির সামনে ছিল। কখনও কখনও এটিকে বাবে আতিকা বলা হত। এটি আকারে বাবে আস-সালামের মতো হলেও সুসজ্জিত কিছুটা কম। মসজিদটি সম্প্রসারিত হওয়ার সাথে সাথে এটিকে তার মূল অবস্থানের সাথে সারিবদ্ধ করার জন্য পশ্চিম দিকে সরানো হয়েছিল।

বাবে আল-হিজরাহ (গেট নং - ৪)

বাবে আল-হিজরাহ, যার অর্থ (মদিনায়) হিজরতের দরজা। এটি একটি দুই খিলানযুক্ত গেট যা বাব আল-রাহমাহ-এর বাম দিকে অবস্থিত। মক্কা থেকে মদিনায় ৬২২ খ্রিস্টাব্দে মুহাম্মদ (সাঃ) এর হিজরতের ঐতিহ্যের স্মরণে এর নামকরণ করা হয়েছে। মূলত এই গেটে মাত্র দুটি প্রবেশপথ ছিল কিন্তু সম্প্রতি আরও দুটি প্রবেশপথ পশ্চিমে স্থাপিত হওয়ায় মোট প্রবেশপথের সংখ্যা চারটিতে পরিণত হয়েছে।

বাবে কুবা (গেট নং - ৫)

বাবে কুবা, আক্ষরিক অর্থে কুবার গেট নামে পরিচিত। বাবে কুবা প্রথম নির্মিত হয়েছিল সৌদি দ্বিতীয় সম্প্রসারণের সময়, যা মসজিদের দক্ষিণ দেয়ালে অবস্থিত। এটির নামকরণ করা হয়েছে কুবা, মদিনার উপকণ্ঠে একটি ছোট গ্রাম, যা মসজিদে নববী থেকে প্রায় ৫ কিলোমিটার দক্ষিণে অবস্থিত। এটি একটি তিন খিলান যুক্ত প্রবেশ পথ। এটি মসজিদে নববীর কিং ফাহাদ বিন আবদুল আজিজ ব্লকের দক্ষিণ-পশ্চিম প্রান্তে অবস্থিত।

মসজিদে নববী (গেট নং - ৬)

মসজিদে নববীর ছাদে যেতে হলে এই গেটে আসতে হবে। আপনি এখানে চলন্ত সিড়ির মাধ্যমে উপরে যেতে পারবেন।

বাবে মালিক আল-সৌদ (গেট নং - ৭, ৮, ৯)

বাবে মালিক আল-সৌদ, যা সৌদ বিন আবদুল আজিজ আল-সৌদের নামে নামকরণ করা হয়েছে, যিনি মসজিদে নববীর প্রথম সৌদি সম্প্রসারণের দায়িত্ব দিয়েছিলেন। দুই পাশে দুটি বড় এবং পাঁচটি ছোট গেট সহ মোট সাতটি প্রবেশপথ রয়েছে। এটি কিং ফাহাদ সম্প্রসারণের সময়ের যা মসজিদের দক্ষিণ-পশ্চিম কোণে অবস্থিত। এটির দক্ষিণ প্রান্তে একটি একক মিনার রয়েছে, যা মসজিদ আন-নববীর ছয়টি উচ্চতম মিনারের একটি।

বাবে ইমাম বুখারী (গেট নং - ১০)

বাবে ইমাম বুখারী, ইমাম আল-বুখারীর নাম অনুসারে তৈরি যা মসজিদে নববীর পশ্চিম পাশে অবস্থিত। এটি মসজিদে নববীর লাইব্রেরিতেও প্রবেশাধিকার প্রদান করে। এটি বাব মালিক আল-সৌদ এবং বাব মালিক আব্দুল মাজিদের মধ্যে অবস্থিত।

বাবে আল-আকীক (গেট নং - ১১)

বাবে আল-আকিক, যা মসজিদে নববীর পশ্চিম দিকে অবস্থিত। এটির নামকরণ করা হয়েছিল ওয়াদি আল-আকীকের নামে, যা মদিনার পশ্চিম সীমানা বরাবর অবস্থিত। ওয়াদি আল-আকীক হল মদিনার একটি উল্লেখযোগ্য উপত্যকা, যেখানে বেশ কয়েকজন বিশিষ্ট সাহাবীর বাসস্থান ছিল। এটি মসজিদে নববীর একটি ছোট প্রবেশপথ।

বাবে আল-মাজিদি (গেট নং - ১২, ১৩, ১৪)

বাবে আল-মাজিদি সৌদি সম্প্রসারণের সময়ের যা মসজিদের উত্তর-পশ্চিম প্রান্তে অবস্থিত। ফাহাদ বিন আব্দুল আজিজের সম্প্রসারণ সময়ের যা মসজিদের উত্তর-পশ্চিম কোণে বাব সুলতান আব্দুল মাজিদ অথবা বাবে মাজেদি নামেও পরিচিত। গেটটিতে পাঁচটি ছোট এবং ২টি বড় সহ মোট ৭ টি প্রবেশপথ রয়েছে। এটির দক্ষিণ দিকে শুধুমাত্র একটি মিনার রয়েছে যা মসজিদ আন-নববীর বাবে ওমর ইবন আল-খাত্তাবের সাথে মিলিত হয়েছে।

বাবে উমর ইবনুল খাত্তাব (গেট নং - ১৬, ১৭, ১৮)

বাবে উমর ইবনুল খাত্তাব মসজিদে নববীর মূল কমপ্লেক্সের উত্তর-পশ্চিম কোণের উত্তর প্রাচীরে অবস্থিত। এটি মসজিদে নববীর লাইব্রেরিতেও প্রবেশাধিকার প্রদান করে। প্রথমে বাবে উমর (প্রথম সৌদি সম্প্রসারণের সময়ে স্থাপিত) মালিক আবদুল আজিজ সম্প্রসারণের সময়ের যা মসজিদের উত্তর-পশ্চিম কোণে অবস্থিত ছিল, কিন্তু মালিক ফাহাদ সম্প্রসারণ সময়ের পর নতুন করে উত্তর-পশ্চিম কোণে গেটটির নামকরণ করা হয় বাবে উমর।

বাবে বদর (গেট নং - ১৯)

বাবে বদর মসজিদের পূর্বে (বাম দিকে) বাবে মালিক ফাহাদ এবং পশ্চিমে (ডান দিকে) বাবে উমর ইবনুল খাত্তাবের মাঝখানে যা মসজিদে নববীর উত্তর দেয়ালে অবস্থিত। এটি একটি একক প্রবেশদ্বার, যার গেটের উপরে সূরা আল-হিজারের একটি আয়াত মার্বেলে খোদাই করা হয়েছে, যার অর্থ হলো “শান্তিতে প্রবেশ কর” (কুরআন ১৫:৪৬)

বাবে মালিক আল-ফাহাদ (গেট নং - ২০, ২১, ২২)

বাবে মালিক আল-ফাহাদ উত্তর দিক থেকে মসজিদে নববীর প্রধান প্রবেশদ্বার। এটি সৌদি আরবের কিং ফাহাদ বিন আব্দুল আজিজ আল-সৌদ এর নামে নামকরণ করা হয়েছে, যিনি ১৯৮২ থেকে ২০০৫ সাল পর্যন্ত সৌদি আরবের রাজা ছিলেন। এটি মসজিদে নববীর একমাত্র বৃহত্তম গেট। গেটটিতে দুটি মিনার এবং সাতটি দরজা রয়েছে। যার শীর্ষে পাঁচটি গম্বুজ রয়েছে।

বাবে ওহাদ (গেট নং - ২৩)

বাব ওহাদ মসজিদে নববীর উত্তর প্রাচীরে অবস্থিত। যা উহুদ উপত্যকার নামে নামকরণ করা হয়েছে, যেখানে ৬২৫ খ্রিস্টাব্দে প্রাথমিকভাবে উহুদের যুদ্ধ হয়েছিল। এই দরজাটি উহুদ উপত্যকার পাদদেশে অবস্থিত। এখানে বাধাগুলি হল পায়ের ট্র্যাফিক মডারেটর যা মসজিদের উচ্চ-ঘনত্বের এলাকায় ব্যবহার করা হয়। এটি মসজিদের ছোট গেটগুলির মধ্যে একটি।

বাবে উসমান ইবনে আফফান (গেট নং - ২৪, ২৫, ২৬)

হযরত উসমান ইবনে আফফান রাঃ উসমান গনি নামেও পরিচিত। তিনি ছিলেন মুহাম্মদ সাঃ এর প্রিয় সাহাবীদের একজন। তার নামানুসারেই বাবে উসমান ইবনে আফফান নামকরণ করা হয়েছে। গেটটি মসজিদের উত্তর-পূর্ব কোণের কাছে দ্বিতীয় সৌদি সম্প্রসারণের সময়ের উত্তর প্রাচীরে অবস্থিত। দুটি বড় এবং পাঁচটি কেন্দ্রীয় প্রবেশপথ সহ এটি মসজিদে নববীর সাতটি বৃহত্তম দরজার একটি। এটি মসজিদে নববীর দুটি দরজার মধ্যে একটি যা মহিলাদের সরাসরি প্রবেশের অনুমতি দেয়।

বাবে আলী ইবনে আবি তালিব (গেট নং - ২৮, ২৯, ৩০)

বাবে আলী ইবনে আবি তালিব মসজিদে নববীর পূর্ব দেয়ালে অবস্থিত। এটি বৃহত্তম সাতটি দরজার মধ্যে একটি। বাবে আলীর নামকরণ করা হয়েছে মুহাম্মদ সাঃ এর সহচর এবং প্রথম চাচাতো ভাই আলী ইবনে আবু তালিবের নামে। এটি মসজিদে নববীর বৃহত্তম দরজার একটি।

বাবে আবু যার আল-গিফারী (গেট নং - ৩১)

বাবে আবু যার আল-গিফারী মুহাম্মদ সাঃ এর একজন প্রিয় সাহাবীর নামে নামকরণ করা হয়েছে, যিনি ইসলাম গ্রহণকারীদের মধ্যে চতুর্থ (বা পঞ্চম) ব্যক্তি। খলিফা উসমান ইবনে আফফানের যুগে আবু যারকে তার কঠোর ধার্মিকতার জন্য এবং প্রথম মুয়াবিয়ার বিরোধিতার জন্য স্মরণ করা হয়। গেটটি বাদশাহ ফাহাদ সম্প্রসারণ সময়ের যা মসজিদের পূর্ব প্রাচীরে বাব আব্দুলাজিজ (বামদিকে) এবং বাব আলি (ডান দিকে) এর মধ্যে অবস্থিত। এটি মসজিদে নববীর ছোট গেটগুলির মধ্যে একটি, যার মাত্র একটি প্রবেশদ্বার রয়েছে।

বাবে ইমাম মুসলিম (গেট নং - ৩২)

বাবে ইমাম মুসলিম গেটটি বর্তমান ইরান শহরের একজন ইসলামী পণ্ডিতের নামে নামকরণ করা হয়েছে। এটি পূর্ব প্রাচীর বরাবর অবস্থিত এবং মসজিদের একটি ছোট একক প্রবেশদ্বার। এটি আবু যার আল-গিফারীর গেট সংলগ্ন অবস্থিত, যা মসজিদের উপরের স্তরে প্রবেশের জন্য এস্কেলেটর সুবিধা প্রদান করে। এটি ইসলামী আইনশাস্ত্রের (ফিকাহ) পণ্ডিতদের নামে নামকরণ করা দুটি দরজার একটি, অন্যটি হল ইমাম আল-বুখারীর গেট।

বাবে মালিক আবদুল আজিজ (গেট নং - ৩৩, ৩৪, ৩৫)

বাবে মালিক আব্দুল আজিজ হলো মসজিদে নববীর অন্যতম বৃহত্তম দরজা। এটিতে প্রবেশ ও প্রস্থানের জন্য মোট পাঁচটি ছোট এবং দুটি বড় প্রবেশপথ রয়েছে। এর নামকরণ করা হয়েছে আবদুল আজিজ ইবনে সৌদের নামে। এটি কিং ফাহাদ সম্প্রসারণ সময়ের যা মসজিদের দক্ষিণ-পূর্ব কোণে অবস্থিত। গেটটির দক্ষিণ দিকে একটি মিনার রয়েছে।

মসজিদে নববী (গেট নং - ৩৬)

৩৬ নম্বর দরজা থেকে আপনি মসজিদে নববীর ছাদে চলন্ত সিড়ি মাধ্যমে উপরে যেতে পারবেন।

বাবে মক্কা (গেট নং - ৩৭)

বাবে মক্কা আক্ষরিক অর্থে মক্কার গেট নামে অধিক পরিচিত। এটি কিং মালিক ফাহাদ কর্তৃক সম্প্রসারণ সময়ের ভবনের দক্ষিণ দিকে অবস্থিত। এটি মক্কা শহরের নামানুসারে নামকরণ করা হয়েছে। এটি মসজিদের দুটি অভিন্ন ফটকের মধ্যে একটি। এটি একটি তিন খিলানযুক্ত গেট, যা প্রথম সৌদি সম্প্রসারণ সময়ের স্থাপত্য নিদর্শনগুলির মধ্যেএকটি।

বাবে বিলাল (গেট নং - ৩৮)

বাবে বিলাল, বিলাল ইবনে রাবাহ আল-হাবাশির নামে নামকরণ করা হয়েছে; যিনি ছিলেন ইসলামের প্রথম মুয়াজ্জিন। এটি বাদশাহ ফাহাদ কর্তৃক মসজিদের সাম্প্রতিক সম্প্রসারণ সময়ের যা মসজিদের দক্ষিণ প্রান্তে অবস্থিত। বর্তমানে গেটটিতে প্রবেশের জন্য চারটি দরজা রয়েছে। মূলত যখন এটি দ্বিতীয় সৌদি সম্প্রসারণ সময়ে নির্মিত হয়েছিল তখন এটি একটি ছোট গেট ছিল যার প্রতিটির উপরে একক খিলান সহ দুটি দরজা ছিল।

বাবে আন-নিসা (গেট নং - ৩৯)

বাবে আন-নিসা বা মহিলাদের দরজা, উমর ইবনে খাত্তাবের খিলাফতের সময় প্রথম নির্মিত হয়েছিল। মূলত মহিলাদের যাতায়াতের জন্য নির্ধারিত, কিন্তু পূর্বে এটি পুরুষ/মহিলা উভয়ই ব্যবহৃত হয়েছিল। তবে উমর বিন আবদুল আজিজের সময়ে এটি এককভাবে নারীদের জন্য নির্ধারিত ছিল। এর বর্তমান স্থাপত্যটি উসমানীয় নকশার সাথে সাদৃশ্যপূর্ণ এবং এটি মসজিদে নববীর পূর্ব দেয়াল বরাবর তিনটি দরজার মধ্যে একটি, যা মুহাম্মদ সাঃ এর কবরের নিকটবর্তী।

বাবে জিবরাইল (গেট নং - ৪০)

বাবে জিবরাঈল, যা বাব উন-নবী নামেও পরিচিত। গেটটির এই নামকরণ করা হয়েছে কারণ এটি প্রচলিত যে ফেরেশতা হজরত জিব্রাইল আঃ এই দরজা দিয়ে প্রবেশ করতেন। সামহৌদির মতে, গেটটি তার আসল অবস্থানে নেই কারণ বিভিন্ন সময়ে মসজিদের সম্প্রসারণে এটি পূর্ব দিকে সরানো হয়েছে।

বাবে আল-বাকী (গেট নং - ৪১)

বাব আল-বাকী নবী মুহাম্মাদ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম-এর সমাধি কক্ষের কাছে অবস্থিত। বাকির গেটটি মসজিদের পূর্বে ঐতিহাসিক ইসলামী কবরস্থান বাকীউল গারকাদের মুখোমুখি। এটি সরাসরি বাব আস-সালামের সাথে সঙ্গতিপূর্ণ। বাব আল-বাকী এবং বাব আস-সালাম কে সংযুক্ত করার জন্য কিবলা প্রাচীর বরাবর চলমান একটি গমনপথ রয়েছে।

বাব উল-আইমাহ (গেট নং - ৪২)

বাব উল-আইমাহ যা (বাব আল-আইমাহ নামেও পরিচিত)। এটি মসজিদ আন-নববীর দক্ষিণ দিকে অবস্থিত একটি ছোট গেট এবং রাসূল সাঃ এর রওজার প্রবেশ পথ। এই গেটটি বাব উল-জানায়েজ নামেও পরিচিত। এটি প্রধানত ইমামদের দ্বারা ব্যবহৃত হয় এবং এটি মিহরাব উসমানীর নিকটবর্তী, যা তৃতীয় খলিফা উসমান রাঃ দ্বারা মসজিদের সম্প্রসারণের পর প্রধান মিহরাব হয়ে ওঠে।

সৌদি সম্প্রসারণের প্রথম গেট - বাবে আব্দুল মাজিদ

মসজিদ আন-নববীর প্রথম সৌদি সম্প্রসারণ সময়ের যা বাব আব্দুল মাজিদ, অটোমান সুলতান আবদুল মাজিদের নামানুসারে নামকরণ করা হয়েছে। এটি ছিল মসজিদে নববির উত্তর দিকের কেন্দ্রীয় গেট, এখন এটি মসজিদে নববীতে অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছে।

শেষ কথা

হিজাজ হজ্জ্ব এবং উমরাহ কাফেলা বাংলাদেশের একটি অত্যন্ত জনপ্রিয় এবং প্রতিষ্ঠিত উমরাহ হজ্জ্ব ট্রাভেল অ্যাজেন্সি। বাংলাদেশের মুসলমানদের জন্য ভিসা প্রসেস, হোটেল বুকিং এবং বিমানের টিকেট প্রাপ্তিতে সহায়তা করে এবং একটি স্বচ্ছ ও অবিচ্ছিন্ন উমরাহ পালন নিশ্চিত করে। আপনার স্বপ্নের উমরাহ এখন আরো সহজ এবং সমৃদ্ধ হবে এই নির্ভরযোগ্য অ্যাজেন্সির সাথে। আপনি যদি উমরাহ পালনে ইচ্ছুক হন, তাহলে আজই আমাদের অ্যাজেন্সির হটলাইনে যোগাযোগ করুন এবং আপনার প্রয়োজনীয় সকল তথ্য জানান।

Apply for an Umrah visa and experience the hassle-free journey to the city of Makkah.

Arrow